ফরিদগঞ্জ ০১:১৬ পূর্বাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ২৩ মে ২০২৪, ৮ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
সংবাদ শিরোনাম ::
ফরিদগঞ্জে সংবাদ সম্মেলনে চেয়ারম্যান প্রার্থী আমীর আজম রেজার নির্বাচনী প্রচারনায় হামলা ও হুমকির অভিযোগ ফরিদগঞ্জে বিএনপির ভোট বর্জনের আহ্বানে লিফলেট বিতরণ ফরিদগঞ্জে আমির আজম রেজাকে সমর্থন দিয়ে মনোনয়ন প্রত্যাহার করলেন দুই চেয়ারম্যান প্রার্থী নিরাপদ সড়কে বিশেষ অবদান রাখায় নিসচার ফরিদগঞ্জ উপজেলা শাখাকে সম্মাননা স্মারক প্রদান ফরিদগঞ্জে বসতঘরে প্রবেশ করে গৃহবধকে ধর্ষন চেষ্টায় আদালতে মামলা ফরিদগঞ্জে হাজী আউয়াল এর ইন্তেকাল ফরিদগঞ্জে ‘ফারিসা’র কমিটি গঠন ফরিদগঞ্জে ‘খাঁন ফাউন্ডেশনে’র শিক্ষা বৃত্তি ও পুরস্কার প্রদান ফরিদগঞ্জে ছেলের হাতে মা খু-ন ফরিদগঞ্জে বৃষ্টির প্রার্থনা করে ইসতিসকার নামাজ আদায়

ফরিদগঞ্জে পৈত্রিক ভূমি রক্ষা ও হামলার ঘটনায় এক পরিবারের আমরণ অনশন

প্রতিনিধির নাম
  • আপডেট সময় : ১০:৫৮:১২ পূর্বাহ্ন, সোমবার, ২ জানুয়ারী ২০২৩ ৩২৮ বার পড়া হয়েছে

ফরিদগঞ্জে পৈত্রিক ভূমি রক্ষা ও হামলার ঘটনায় এক পরিবারের আমরণ অনশন

ফরিদগঞ্জ সংবাদ ডেস্ক : ফরিদগঞ্জ উপজেলার রূপসা উত্তর ইউনিয়নের রুস্তুমপুর গ্রামের ফয়েজ মৃধা, শেখ ফরিদ এবং তদের পরিবারের শিশু সন্তানসহ আমরণ অনশনে করেন।

সোমবার (২ জানুয়ারি) সকালে ফরিদগঞ্জ প্রেসক্লাবের সামনের সড়কের পাশে ভুক্তভোগী পরিবারের সদস্য অনশনে অংশ নেয়।
দুই বছর ধরে পৈত্রিক ভূমি থেকে উচ্ছদে নানাভাবে হয়রানি, প্রকাশ্য দিবোলোকে হামলা মরধর, টিনেরঘর, দোকানঘর ভাংচুর, গাছগাছালি কেটে সাবাড়ের ঘটনায় আতংকিত পরিবারের সদস্যরা পুলিশের কাছ থেকে কোন আইনী সহযোগিতা না পাওয়ায় আমরণ অনশনে বসেছে ভূক্তভোগী পরিবারের সদস্যরা।

ভূক্তভোগীরা জানায়, উপজেলার রূপসা উত্তর ইউনিয়নের রুস্তুমপুর গ্রামের ফয়েজ মৃধা গংদের সাথে মুগদা থানা আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক মোশারফ হোসেন বাহার গং তাদের প্রতিবেশী হওয়ায় জমিজমা নিয়ে বিরোধ সৃষ্টি হয়।
অনশনে অংশ নেয়া ভুক্তভোগী শেখ ফরিদ মৃধার পরিবারের অভিযোগ,তাদের দখল ও দলিল মূলে বেশ কয়েকটি দাগে ৪৮.৬২শতক জায়গার মালিক এবং এ পর্যন্ত দখলে থেকে ভোগ করে আসছেন তারা। কিন্তু প্রভাবশালী একটি চক্র যাদের একজন মোশারফ হোসেন বাহার, মোজাম্মেল হোসেন বাবুল, আবুল কাশেম, দেলোয়ার হোসেন, লোকমান আমিন গং তাদের দলীয় প্রভাব খাটিয়ে সম্পত্তি দখল করার চেষ্টাসহ নিয়মিত হয়রানী করে আসছে। এ নিয়ে কয়েকবার প্রকাশ্যে শারীরিক হামলার শিকার হয়েছেন তারা। সর্বশেষ গত ২০ ডিসেম্বর প্রকাশ্য দিবোলোকে তাদের সম্পত্তি দখলের চেষ্টার অংশ হিসেবে হামলা, মারধর, টিনেরঘর, দোকানঘর ভাংচুর, গাছগাছালি কেটে সাবাড়ের ঘটনা ঘটায়। ভুক্তভোগীরা নিরুপায় হয়ে ৯৯৯ ফোন দিলে পুলিশ দুই দফা ঘটনাস্থলে গেলেও হামলা, ভাংচুর ও গাছগাছলি কেটে নেয়ার ঘটনায় অদ্যবদি মামলা নেয়নি।

উক্ত নালিশী সম্পত্তির বিষয়ে ১৪৫ ধারার মামলার ঘটনায় বিজ্ঞ আদালত ফরিদগঞ্জ উপজেলা ভূমি কর্মকর্তাকে দখলীয় প্রতিবেদন দিতে নির্দেশ দিলে স্থানীয় ভূমি অফিসের কর্মকর্তা-কর্মচারীরা উল্টো প্রভাবশালী পক্ষের দখল দেখিয়ে গত কয়েক মাস পূর্বে প্রতিবেদন দাখিল করে। ভূমি অফিসের প্রতিবেদনকে মিথ্যা আখ্যায়িত করে চ্যালেঞ্জ ছুড়ে দিয়ে উপজেলার ভূমি কর্মকর্তার বিরুদ্ধে সংবাদ সম্মেলন করেছে ভুক্তভোগী পরিবারটি।

এ ব্যাপারে প্রতিপক্ষ লোকমান আমিনের ছেলে ওমর ফারুক জানান, আদালতে মামলা চলমান অবস্থায় ফয়েজ মৃধাদের দখলে থাকা ওই সম্পত্তি ২০ ডিসেম্বর তারা দখলমুক্ত করেছেন।
ফরিদগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. আব্দুল মান্নান বলেন, বিষয়টি নিয়ে থানায় লিখিত অভিযোগ পেয়েছি। তদন্ত করে দোষীদের বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

নিউজটি শেয়ার করুন

আপনার মন্তব্য

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আপনার ইমেইল এবং অন্যান্য তথ্য সংরক্ষন করুন

আপলোডকারীর তথ্য
ট্যাগস :

ফরিদগঞ্জে পৈত্রিক ভূমি রক্ষা ও হামলার ঘটনায় এক পরিবারের আমরণ অনশন

আপডেট সময় : ১০:৫৮:১২ পূর্বাহ্ন, সোমবার, ২ জানুয়ারী ২০২৩

ফরিদগঞ্জে পৈত্রিক ভূমি রক্ষা ও হামলার ঘটনায় এক পরিবারের আমরণ অনশন

ফরিদগঞ্জ সংবাদ ডেস্ক : ফরিদগঞ্জ উপজেলার রূপসা উত্তর ইউনিয়নের রুস্তুমপুর গ্রামের ফয়েজ মৃধা, শেখ ফরিদ এবং তদের পরিবারের শিশু সন্তানসহ আমরণ অনশনে করেন।

সোমবার (২ জানুয়ারি) সকালে ফরিদগঞ্জ প্রেসক্লাবের সামনের সড়কের পাশে ভুক্তভোগী পরিবারের সদস্য অনশনে অংশ নেয়।
দুই বছর ধরে পৈত্রিক ভূমি থেকে উচ্ছদে নানাভাবে হয়রানি, প্রকাশ্য দিবোলোকে হামলা মরধর, টিনেরঘর, দোকানঘর ভাংচুর, গাছগাছালি কেটে সাবাড়ের ঘটনায় আতংকিত পরিবারের সদস্যরা পুলিশের কাছ থেকে কোন আইনী সহযোগিতা না পাওয়ায় আমরণ অনশনে বসেছে ভূক্তভোগী পরিবারের সদস্যরা।

ভূক্তভোগীরা জানায়, উপজেলার রূপসা উত্তর ইউনিয়নের রুস্তুমপুর গ্রামের ফয়েজ মৃধা গংদের সাথে মুগদা থানা আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক মোশারফ হোসেন বাহার গং তাদের প্রতিবেশী হওয়ায় জমিজমা নিয়ে বিরোধ সৃষ্টি হয়।
অনশনে অংশ নেয়া ভুক্তভোগী শেখ ফরিদ মৃধার পরিবারের অভিযোগ,তাদের দখল ও দলিল মূলে বেশ কয়েকটি দাগে ৪৮.৬২শতক জায়গার মালিক এবং এ পর্যন্ত দখলে থেকে ভোগ করে আসছেন তারা। কিন্তু প্রভাবশালী একটি চক্র যাদের একজন মোশারফ হোসেন বাহার, মোজাম্মেল হোসেন বাবুল, আবুল কাশেম, দেলোয়ার হোসেন, লোকমান আমিন গং তাদের দলীয় প্রভাব খাটিয়ে সম্পত্তি দখল করার চেষ্টাসহ নিয়মিত হয়রানী করে আসছে। এ নিয়ে কয়েকবার প্রকাশ্যে শারীরিক হামলার শিকার হয়েছেন তারা। সর্বশেষ গত ২০ ডিসেম্বর প্রকাশ্য দিবোলোকে তাদের সম্পত্তি দখলের চেষ্টার অংশ হিসেবে হামলা, মারধর, টিনেরঘর, দোকানঘর ভাংচুর, গাছগাছালি কেটে সাবাড়ের ঘটনা ঘটায়। ভুক্তভোগীরা নিরুপায় হয়ে ৯৯৯ ফোন দিলে পুলিশ দুই দফা ঘটনাস্থলে গেলেও হামলা, ভাংচুর ও গাছগাছলি কেটে নেয়ার ঘটনায় অদ্যবদি মামলা নেয়নি।

উক্ত নালিশী সম্পত্তির বিষয়ে ১৪৫ ধারার মামলার ঘটনায় বিজ্ঞ আদালত ফরিদগঞ্জ উপজেলা ভূমি কর্মকর্তাকে দখলীয় প্রতিবেদন দিতে নির্দেশ দিলে স্থানীয় ভূমি অফিসের কর্মকর্তা-কর্মচারীরা উল্টো প্রভাবশালী পক্ষের দখল দেখিয়ে গত কয়েক মাস পূর্বে প্রতিবেদন দাখিল করে। ভূমি অফিসের প্রতিবেদনকে মিথ্যা আখ্যায়িত করে চ্যালেঞ্জ ছুড়ে দিয়ে উপজেলার ভূমি কর্মকর্তার বিরুদ্ধে সংবাদ সম্মেলন করেছে ভুক্তভোগী পরিবারটি।

এ ব্যাপারে প্রতিপক্ষ লোকমান আমিনের ছেলে ওমর ফারুক জানান, আদালতে মামলা চলমান অবস্থায় ফয়েজ মৃধাদের দখলে থাকা ওই সম্পত্তি ২০ ডিসেম্বর তারা দখলমুক্ত করেছেন।
ফরিদগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. আব্দুল মান্নান বলেন, বিষয়টি নিয়ে থানায় লিখিত অভিযোগ পেয়েছি। তদন্ত করে দোষীদের বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।