ফরিদগঞ্জ ০২:৪৫ পূর্বাহ্ন, মঙ্গলবার, ২৩ এপ্রিল ২০২৪, ৯ বৈশাখ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
সংবাদ শিরোনাম ::

ফরিদগঞ্জে সম্পত্তিগত বিরোধে প্রবাসীর স্ত্রীসহ দুই সন্তানের উপর হামলা।। থানায় অভিযোগ

শামীম হাসান
  • আপডেট সময় : ০৪:৫৯:৪২ পূর্বাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ২১ মার্চ ২০২৪ ৯০ বার পড়া হয়েছে

 

ফরিদগঞ্জে সম্পত্তিগত বিরোধের জেরে একটি পরিবারের যাতায়াতের একাধিক পথে বেড়া দেয়া এবং প্রবাসীর স্ত্রীসহ দুই সন্তানের উপর হামলার ঘটনা ঘটেছে।

মঙ্গলবার (১৯ মার্চ) বিকেলে ফরিদগঞ্জ পৌর এলাকার ৭নং ওয়ার্ডের পূর্ব কাছিয়াড়া গ্রামের পলোয়ান বাড়িতে ঘটনাটি ঘটে। হামলার ঘটনায় প্রবাসীর স্ত্রী নাসিমা বেগম ও তার বড় ছেলে নাইম পলোয়ান ফরিদগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্যকমপ্লেক্সে চিকিৎসা গ্রহণ করেন৷

এ ঘটনায় মোহাম্মদ রনি, মোহাম্মদ ইমাম হোসেন, একাতর নেছা, রুনা ও মোহাম্মদ শাহাদাত হোসেন কালুকে অভিযুক্ত করে ফরিদগঞ্জ থানায় লিখিত অভিযোগ করেছেন হামলার শিকার প্রবাসী আব্দুল কাদেরের স্ত্রী নাসিমা বেগম।

হামলার ঘটনা বর্ণনা করতে গিয়ে প্রাবাসীর ছোট ছেলে ইয়াছিন পলোয়ান বলেন, গত একবছর আগে তারা আমাদের হাটার রাস্তায় বেড়া দেয়। ঝগড়া বিবাদ যাতে না হয় সেজন্য এরপর থেকে বাড়ির পেছন দিয়ে গাছগাছালির ভেতর দিয়ে আমারা যাতায়াত করতাম, সম্প্রতি বাড়ির পেছনের রাস্তাটিতেও তারা আবার বেড়া দেয়৷ আমাদের ঘরের ছাদের অংশের সাথে থাকা তাদের নারিকেল গাছ থেকে নারিকেল পাড়ার সময় আমার মা ও বড় ভাই এগিয়ে এলে তাদের হাতে থাকা ব্যাট দিয়ে আঘাত করে দুজনকেই গুরুতরভাবে আহত করে৷

প্রবাসী আব্দুল কাদেরের স্ত্রী নাসিমা বেগম বলেন আমাদের পাশ্ববর্তী ইমাম হোসেন ও তার ছেলে মোঃ রনিদের সাথে সম্পত্তিগত বিরোধের কারনে তারা আমাদের পথ আটকে দেয়, ঝগড়াঝাঁটির ভয়ে আমরা সেপথ দিয়ে আর হাটি না। আজকে তারা আবার এসে আমাকে আর আমার ছেলেকে মারছে৷ এখন দুই সন্তানকে নিয়ে আমি প্রতি মূহুর্তে আতঙ্কে দিন কাটাতে হচ্ছে।

অভিযুক্ত ইমাম হোসেন ও তার ছেলে মোঃ রনির কাছ থেকে এই বিষয়ে জানতে চাওয়ার জন্য সরেজমিনে তাদের বসত ঘরে গিয়েও কাউকে পাওয়া যায়নি। হামলার শিকার নাসিমা বেগমের স্বামী প্রবাসী আব্দুল কাদির মুঠোফোনে চাঁদপুর কন্ঠকে জানান আমার চলাচলের একাধিক পথে বেড়া দিয়ে পথ অবরুদ্ধ করে রাখা এবং আমার স্ত্রী ও ছেলের উপর হামলাকারীদের আইনের আওতায় এনে দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি দাবি করছি।

অভিযোগের তদন্তকারী কর্মকর্তা ফরিদগঞ্জ থানার এসআই জাহাঙ্গীর আলমের কাছে বিষয়টি সম্পর্কে জানতে চাইলে তিনি বলেন, অভিযোগের ভিত্তিতে ঘটনাস্থল পরিদর্শন করতে গিয়ে অভিযোগের পূর্ণসত্যতা পেয়েছি। তদন্ত সাপেক্ষে আমরা ব্যাবস্থা গ্রহণ করবো।

নিউজটি শেয়ার করুন

আপনার মন্তব্য

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আপনার ইমেইল এবং অন্যান্য তথ্য সংরক্ষন করুন

আপলোডকারীর তথ্য
ট্যাগস :

ফরিদগঞ্জে সম্পত্তিগত বিরোধে প্রবাসীর স্ত্রীসহ দুই সন্তানের উপর হামলা।। থানায় অভিযোগ

আপডেট সময় : ০৪:৫৯:৪২ পূর্বাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ২১ মার্চ ২০২৪

 

ফরিদগঞ্জে সম্পত্তিগত বিরোধের জেরে একটি পরিবারের যাতায়াতের একাধিক পথে বেড়া দেয়া এবং প্রবাসীর স্ত্রীসহ দুই সন্তানের উপর হামলার ঘটনা ঘটেছে।

মঙ্গলবার (১৯ মার্চ) বিকেলে ফরিদগঞ্জ পৌর এলাকার ৭নং ওয়ার্ডের পূর্ব কাছিয়াড়া গ্রামের পলোয়ান বাড়িতে ঘটনাটি ঘটে। হামলার ঘটনায় প্রবাসীর স্ত্রী নাসিমা বেগম ও তার বড় ছেলে নাইম পলোয়ান ফরিদগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্যকমপ্লেক্সে চিকিৎসা গ্রহণ করেন৷

এ ঘটনায় মোহাম্মদ রনি, মোহাম্মদ ইমাম হোসেন, একাতর নেছা, রুনা ও মোহাম্মদ শাহাদাত হোসেন কালুকে অভিযুক্ত করে ফরিদগঞ্জ থানায় লিখিত অভিযোগ করেছেন হামলার শিকার প্রবাসী আব্দুল কাদেরের স্ত্রী নাসিমা বেগম।

হামলার ঘটনা বর্ণনা করতে গিয়ে প্রাবাসীর ছোট ছেলে ইয়াছিন পলোয়ান বলেন, গত একবছর আগে তারা আমাদের হাটার রাস্তায় বেড়া দেয়। ঝগড়া বিবাদ যাতে না হয় সেজন্য এরপর থেকে বাড়ির পেছন দিয়ে গাছগাছালির ভেতর দিয়ে আমারা যাতায়াত করতাম, সম্প্রতি বাড়ির পেছনের রাস্তাটিতেও তারা আবার বেড়া দেয়৷ আমাদের ঘরের ছাদের অংশের সাথে থাকা তাদের নারিকেল গাছ থেকে নারিকেল পাড়ার সময় আমার মা ও বড় ভাই এগিয়ে এলে তাদের হাতে থাকা ব্যাট দিয়ে আঘাত করে দুজনকেই গুরুতরভাবে আহত করে৷

প্রবাসী আব্দুল কাদেরের স্ত্রী নাসিমা বেগম বলেন আমাদের পাশ্ববর্তী ইমাম হোসেন ও তার ছেলে মোঃ রনিদের সাথে সম্পত্তিগত বিরোধের কারনে তারা আমাদের পথ আটকে দেয়, ঝগড়াঝাঁটির ভয়ে আমরা সেপথ দিয়ে আর হাটি না। আজকে তারা আবার এসে আমাকে আর আমার ছেলেকে মারছে৷ এখন দুই সন্তানকে নিয়ে আমি প্রতি মূহুর্তে আতঙ্কে দিন কাটাতে হচ্ছে।

অভিযুক্ত ইমাম হোসেন ও তার ছেলে মোঃ রনির কাছ থেকে এই বিষয়ে জানতে চাওয়ার জন্য সরেজমিনে তাদের বসত ঘরে গিয়েও কাউকে পাওয়া যায়নি। হামলার শিকার নাসিমা বেগমের স্বামী প্রবাসী আব্দুল কাদির মুঠোফোনে চাঁদপুর কন্ঠকে জানান আমার চলাচলের একাধিক পথে বেড়া দিয়ে পথ অবরুদ্ধ করে রাখা এবং আমার স্ত্রী ও ছেলের উপর হামলাকারীদের আইনের আওতায় এনে দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি দাবি করছি।

অভিযোগের তদন্তকারী কর্মকর্তা ফরিদগঞ্জ থানার এসআই জাহাঙ্গীর আলমের কাছে বিষয়টি সম্পর্কে জানতে চাইলে তিনি বলেন, অভিযোগের ভিত্তিতে ঘটনাস্থল পরিদর্শন করতে গিয়ে অভিযোগের পূর্ণসত্যতা পেয়েছি। তদন্ত সাপেক্ষে আমরা ব্যাবস্থা গ্রহণ করবো।